ATM এর পূর্ণরূপ কি?ATM থেকে টাকা তোলার নিয়ম – What Is ATM In Bengali

ATM এর পূর্ণরূপ কি? বর্তমান বিশ্বে প্রযুক্তির চাহিদা অনেক বেড়েছে এবং ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং এই প্রযুক্তি আমাদের ATM নামের একটি মেশিন দিয়েছে যা প্রায় সব শহরেই পূর্ণ আস্থার সাথে ব্যবহার করা হচ্ছে।

কিন্তু এখনও এমন অনেক লোক আছেন যারা এটিএম সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য জানেন না এবং তারা এটিএম ব্যবহার করতেও জানেন না এবং সেই কারণে তারা এটিএম ব্যবহার করতে ভয় পান।

কিছু লোক মনে করে যে এটিএম নিরাপদ নয়, তাই এই নিবন্ধে আমরা এটিএম সম্পর্কিত প্রায় সমস্ত তথ্য দিয়েছি, যা পড়লে এটিএম সম্পর্কিত সমস্ত জিনিস আপনারা বুঝতে পারবেন।

আরও পড়ুনOTP এর পূর্ণরূপ কি এবং এর মানে কি? OTP কেন ব্যবহার করা হয়?

ATM কি?(What Is ATM In Bengali)

ATM এর পুরো নাম হলো Automated Teller Machine. এটি এমন একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস যা ব্যাঙ্ক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদের বিভিন্ন ধরনের আর্থিক লেনদেন করতে ব্যবহৃত হয়।যেমন নগদ তোলা, জমা, অর্থ স্থানান্তর, অ্যাকাউন্টের তথ্য, এটিএম পিন তৈরি করা, এটিএম পিন পরিবর্তন করা বা অন্য কোনো ব্যক্তির সাথে আধার রূপান্তর করতে ব্যবহৃত হয়। এছাড়াও আপনি যে কোনো সময় ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলতে পারবেন, তাও কোনো ব্যাঙ্ক কর্মীদের সঙ্গে কথা না বলে।

অটোমেটেড টেলার মেশিন স্বয়ংক্রিয় ব্যাংকিং মেশিন, ক্যাশ পয়েন্ট, হোল ইন দ্য ওয়াল, ইউরোপ, আমেরিকা এবং রাশিয়ায় ব্যানকোম্যাট ইত্যাদি নামে পরিচিত। এই মেশিনটি একটি টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রিত এবং কম্পিউটারাইজড ডিভাইস যা গ্রাহকদের আর্থিক স্থানান্তর পরিষেবা প্রদান করে।

প্রতিটি সক্রিয় এটিএম-এ, একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ নগদ জমা হয়, যা ব্যাঙ্কের কর্মীরা নিয়মিত চেক করেন। আর যখন এটিএম-এ জমে থাকা নগদ ফুরিয়ে যায়, তখন ICMC (ইন্টিগ্রেটেড কারেন্সি ম্যানেজমেন্ট সেন্টার)-এর আধিকারিকরা সম্পূর্ণ নিরাপত্তার সঙ্গে এটিএম-এ নগদ জমা করেন।

ATM এর পূর্ণরূপ কি?

ATM এর পুরো বা পূর্ণরূপের নাম হলো – Automated Teller Machine.

ATM এর ইতিহাস

ATM বা Automated Teller Machine এর উদ্ভাবক হলেন জন শেফার্ড-ব্যারন যিনি এটি 1960 সালে আবিষ্কার করেছিলেন।এর সাথে এটিকে Automatic banking machine, cash point, Bankomat বলা হয়।

আধুনিক এটিএমের প্রজন্ম প্রথম 27 জুন, 1967 এ লন্ডনের বার্কলে ব্যাংক দ্বারা ব্যবহৃত হয়েছিল। 1960-এর দশকের শুরুতে, ব্যাঙ্কোগ্রাফ নামে পরিচিত এটিএম, লন্ডনে প্রথম ব্যবহার করা হয়েছিল বলে মনে করা হয় এবং এর উদ্ভাবনের কৃতিত্ব জন শেফার্ড-ব্যারনের কাছে রয়েছে। তিনি ব্রিটিশ ভারতের মেঘালয়ের শিলংয়ে 23 জুন 1925 সালে জন্মগ্রহণ করেন।

ব্যারন এটিএম পিনকে 6 সংখ্যায় পরিবর্তন করার পক্ষে ছিলেন, কিন্তু তার স্ত্রী তাকে বলেছিলেন যে 6 সংখ্যা খুব বেশি এবং লোকেরা এটি মনে রাখতে পারবে না। এই কারণে, তিনি পরে একটি চার সংখ্যার এটিএম পিন তৈরি করেন। আজও মাত্র চার অঙ্কের pin এর ব্যবহার প্রচলিত আছে।

ATM এর সুবিধা প্রথম ভারতে 1987 সালে শুরু হয়েছিল। ভারতে প্রথম এটিএম হংকং এবং সাংহাই ব্যাঙ্কিং কর্পোরেশন (HSBC) দ্বারা মুম্বাইতে ইনস্টল করা হয়েছিল। বর্তমানে, এটিএম ব্যবহার দৈনন্দিন রুটিনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠেছে। কারণ যখনই একটি উদ্ভাবন ঘটে তখনই তার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিতে শুরু করে।

ATM থেকে টাকা তোলার নিয়ম

এটিএম থেকে টাকা তোলার জন্য আপনাকে যা দরকার তা হল আপনার এটিএম কার্ড এবং আপনার পিনের পাসওয়ার্ড। আপনি যদি ATM থেকে টাকা তোলার বিষয়ে নিশ্চিত না হন, তাহলে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আপনাকে সাহায্য করার জন্য আমরা একটি বিস্তারিত ধাপে ধাপে নির্দেশিকা একসাথে রেখেছি। আসুন জেনে নেই কিভাবে এটিএম থেকে টাকা তোলা যায়।

  1. আপনাকে প্রথমে আপনার এলাকার কাছাকাছি একটি এটিএম খুঁজে বের করতে হবে। যদি সম্ভব হয়, আপনার যদি একই ব্যাঙ্কের এটিএম মেশিন থাকে তবে আরও ভাল। যাইহোক, আপনি চাইলে যেকোনো ব্যাঙ্কের এটিএম থেকে টাকা তুলতে পারবেন।
  2. এবার আপনার এটিএম কার্ডটি মেশিনে রাখুন। আপনি এটিএম মেশিনের সামনের নির্দেশাবলীতে এই প্রক্রিয়াটির পদ্ধতি দেখতে পাবেন। এটিএম সরাসরি প্রবেশ করান এবং সেখানে সাধারণত সবুজ আলো জ্বলে থাকে। এটিএম সরাসরি মেশিনে ঢোকান না হলে মেশিন পড়তে পারবে না। আপনি যদি এটি পড়তে না পারেন তবে আপনাকে এটি পুনরায় সন্নিবেশ করতে স্ক্রীনে বলা হবে৷
  3. একবার এটিএম মেশিন আপনার কার্ড পড়ে ফেললে, আপনাকে ভাষা নির্বাচনের বিকল্প দেওয়া হবে। এটিএম-এর প্রধান ভাষা শুধুমাত্র ইংরেজি এবং হিন্দি হয়। এবং আপনি আপনার সুবিধা অনুযায়ী এই দুটি ভাষার মধ্যে যেকোনো একটি বেছে নিতে পারেন।
  4. এখন আপনার কাজের জন্য ATM Machine আপনার পিন চাইবে। এই পিনটি একই পিন, যেটি এটিএমের সাথে ব্যাঙ্ক আপনাকে দেয়। যা আপনাকে কারো সাথে শেয়ার করতে না বলা হয়।
  5. একবার আপনি আপনার সঠিক পিনটি প্রবেশ করালে, স্ক্রিনে আপনার সামনে একটি নতুন page খুলবে। এখন আপনাকে আপনার অ্যাকাউন্টের ধরন নির্বাচন করতে হবে। যেমন savings account বা Current Account। যাই হোক না কেন, আপনি সঠিকটি বেছে নিন।
  6. অ্যাকাউন্টের ধরন নির্বাচন করার পরে, আপনি যে পরিমাণ টাকা তুলতে চান তা লিখতে হবে। মনে রাখবেন বিভিন্ন ব্যাঙ্ক এবং বিভিন্ন অ্যাকাউন্টের আলাদা আলাদা টাকা তোলার নিদিষ্ট সীমা দেওয়া রয়েছে।
  7. একবার আপনি আপনার টাকার পরিমাণটি প্রবেশ করুন এবং ওকে ক্লিক করলে, আপনার প্রবেশ করা পরিমাণটি মেশিন থেকে বেরিয়ে আসবে । আর এইভাবে আপনি সহজেই এটিএম থেকে আপনার টাকা তুলতে পারবেন। মনে রাখবেন যে পরিমাণ টাকা আপনি লিখেছেন তার চেয়ে বেশি টাকা আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে থাকা উচিত, অন্যথায় আপনি এটিএম টাকা তুলতে পারবেন না।
  8. এইভাবে আপনি ATM থেকে খুব সহজেই আপনার লেনদেন সম্পন্ন করতে পারবেন।

ATM এর প্রকারভেদ

বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন ধরনের ATM Machine দেখা যায়, যার কাজ একই কিন্তু নাম ভিন্ন ভিন্ন ।

  • On-Side ATM – ব্যাঙ্কের প্রাঙ্গনে উপস্থিত এটিএমকে অন-সাইড এটিএম বলে।
  • Off-Side ATM – ব্যাঙ্কের প্রাঙ্গনে বিদ্যমান এটিএমকে অফ-সাইড এটিএম বলা হয়।
  • Workside ATM – এই ধরনের এটিএম একটি অফিসে বা কোনও কর্মক্ষেত্রে উপস্থিত থাকে যা শুধুমাত্র সেই জায়গার কর্মীদের ব্যবহারের জন্য হয় ।
  • Cash Dispenser – এই ধরনের এটিএম সাধারণত পাওয়া যায় যেখানে নগদ উত্তোলন, চেকিং ডিপোজিট অ্যাকাউন্ট এবং মিনি স্টেটমেন্টের অনুরোধ করা হয়।
  • Mobile ATM – এই ধরনের এটিএম একটি মেশিন যা ব্যবহারকারীদের জন্য বিভিন্ন এলাকায় কাজ করে।বর্তমানে কোভিড 19-এর কারণে মোবাইল এটিএম-এর সংখ্যা বেড়েছে।
  • White Lable ATM  – হোয়াইট লেবেল এটিএম মানে Automated Teller Machine যা নন-ব্যাংকিং আর্থিক সংস্থাগুলি দ্বারা সরবরাহ করা হয়।
  • Green Lable ATM– এই ধরনের এটিএম কৃষি সম্পর্কিত লেনদেনের জন্য ব্যবহৃত করা হয়।
  • Orange Label ATM – অরেঞ্জ লেবেল এটিএম শেয়ার, স্টক ইত্যাদির লেনদেনের জন্য ব্যবহৃত হয়।
  • Yellow Label ATM – এই ধরণের এটিএম অনলাইন কেনাকাটার জন্য ব্যবহৃত হয়।
  • Pink Lable ATM – এই ধরনের এটিএম মহিলাদের জন্য উপলব্ধ করা হয়েছে।

ATM এর সুবিধা

  • আপনি যেখানেই যান আপনার সাথে নগদ টাকা বা চেক বই বহন করার দরকার নেই।
  • কেনাকাটা এবং রেস্তোরাঁয় খাওয়া দাওয়ার সময় শুধু আপনার এটিএম কার্ডটি সোয়াইপ করুন এবং বিল পরিশোধ করুন।
  • আপনি সহজেই ATM Card দিয়ে আপনার খরচ এবং অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স ট্র্যাক করতে পারেন।এর ফলে ব্যাংকে আপনাকে বার বার যাওয়ার কোনো দরকার হবে না।

ATM এর অসুবিধা

  • আপনি যখনই একটি এটিএম কার্ডের জন্য আবেদন করবেন, তখন এটিএম কার্ডের জন্য একটি ফি রয়েছে যা আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতি বছর নেওয়া হবে।
  • এটিএম কার্ড ব্যবহার করার সময় সতর্ক হওয়া দরকার কারণ ডেবিট কার্ড জালিয়াতি, ক্লোনিং এবং জালিয়াতির মতো ঘটনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে ।

ATM কি?

এটিএম হলো এমন একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস যা বিভিন্ন ব্যাঙ্ক তাঁর গ্রাহকদের বিভিন্ন ধরনের আর্থিক লেনদেন করতে প্রদান করে থাকে।এটিএম এর সাহায্যে গ্রাহকরা যে কোনো জায়গায় এবং সময়ে টাকা তুলতে পারে।

ATM এর Full From কি?

ATM এর Full From বা পুরো নাম হলো Automated Teller Machine.

ATM কে আবিষ্কার করেন?

1960 সালে শেফার্ড-ব্যারন প্রথম ATM আবিষ্কার করেছিলেন।

Share the article

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *